প্রশ্ন ও উত্তর দিয়ে জিতে নিন পুরষ্কার, বিস্তারিত জানতে এখানে দেখুন!
1,247 জন দেখেছেন
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন
আমি অনেক চিকন। সবাই বলে আমি নাকি খাই না। অনেকে চিকনা হলে ডাকে। আমি খুব খাই কিন্তু কিছুতেই মোটা হতে পারতেছিনা। কি করলে খুব সহজেই মোটা হওয়া যাবে।
Fazlul Haque করেছেন (106 পয়েন্ট)
আমিও খুব চিকন। আমিও মোটা হতে চাই।

4 উত্তর

+7 টি ভোট
করেছেন
সম্পাদিত

মোটা হওয়ার সহজ উপায়ঃ

কোন সমস্যার সমাধান জানার আগে ওই সমস্যার কারণগুলো সম্পর্কে জেনে রাখা ভালো। মোটা হওয়ার সহজ উপায়গুলো জানার আগে চলুন জেনে নেই ওজন কম হওয়ার কারণ সম্পর্কে।

ওজন কম হওয়ার কারণঃ

বিভিন্ন কারণে ওজন কম হতে পারে। অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাস, জেনেটিক কারণ, মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা, ডায়রিয়া, ক্যান্সার, ডায়বেটিস, এইডস, হাইপারথাইরয়েডিজম, আর্থ্রাইটিস, যক্ষ্মা, কিডনির সমস্যা, ফুসফুসের সমস্যা, ড্রাগ নেওয়া ইত্যাদি। এছাড়া বয়সের জন্যও ওজন কমবেশি হয়ে থাকে। ওজন বাড়ানোর ক্ষেত্রে সর্বপ্রথম এইদিকগুলো লক্ষ্য রাখতে হবে।

চলুন জেনে নেই মোটা হওয়ার সহজ উপায়গুলোঃ

সমস্যা যখন রয়েছে তখন এর সমাধানও আছে। মোটা হওয়ার জন্য কিছু সহজ পদ্ধতি চলুন জেনে নেই।

১। ব্যায়াম করা

অনেকেই ভেবে থাকেন ওজন কমাতেই ব্যায়াম প্রয়োজন, কিন্তু এই ধারণা মোটেও ঠিক না। ওজন কমাতে যেমন ব্যায়াম প্রয়োজন ঠিক তেমনি ওজন বাড়াতেও ব্যায়াম করা খুবই প্রয়োজন। এক্ষেত্রে শুধু দৌড় ঝাঁপই যথেষ্ট না। দরকার প্রতিদিন নিয়ম করে জিম করা। জিমে অভিজ্ঞ ট্রেইনার থাকেন। আপনার ওজন এবং চেহারা দেখে তিনিই আপনাকে বলে দিবেন কোন ব্যায়াম আপনার করতে হবে।

২। বার বার খাবার গ্রহণ 

বার বার খাবার গ্রহণ প্রতিটি মানুষেরই করা উচিৎ। প্রতি ২ ঘন্টা অন্তর অন্তর অল্প করে কিছু খেতে হবে। কিন্তু যারা ওজন বৃদ্ধি করতে চাচ্ছেন তারা ২ ঘন্টা পর পর বেশি করে খেতে হবে। এসময় আপনি দুধ, দই, ফল, ছানা ইত্যাদি দিয়েই পূরণ করতে পারেন। এতে আপনার শরীরে পুষ্টির পাশাপাশি ওজনও বৃদ্ধি পাবে। এটি মোটা হওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায়।

৩। খাবারে রাখুন কার্বোহাইড্রেড 

মোটা হওয়ার জন্য খাবারে রাখুন কার্বোহাইড্রেড -

ওজন বৃদ্ধিতে কার্বোহাইড্রেড খুবই প্রয়োজন। খাবারের তালিকায় কার্বোহাইড্রেড অবশ্যই রাখবেন। ভাত ও রুটি কার্বোহাইড্রেডের প্রধান উৎস। তাই প্রতিদিন অন্তত ২ বার কার্বোহাইড্রেড খাবেন। ভাত ও রুটি কার্বোহাইড্রেডের প্রধান উৎস তার মানে এই নয় যে বেশি বেশি খাবেন। আপনাকে অতিরিক্ত ফ্যাটের দিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে। তাই প্রতিদিন কার্বোহাইড্রেড খাবেন পরিমিত কিন্তু সাধারণের তুলনায় কিছুটা বেশি। মোটা হওয়ার সহজ উপায় গুলোর মধ্যে এটি অন্যতম।

৪। বেশি ক্যালোরি গ্রহন

ওজন কমানোর ক্ষেত্রে আমরা বেশি ক্যালোরি বার্ন করি এবং কম ক্যালোরি গ্রহণ করি। কিন্তু এই ক্ষেত্রে উলটা হবে যতটুকু ক্যালোরি বার্ন করবেন তার দ্বিগুণ ক্যালোরি গ্রহণ করতে হবে। ওজন বৃদ্ধির জন্য শরীরের চাহিদার তুলনায় বেশি ক্যালোরি নিন। ওজন দ্রুত বৃদ্ধি করতে চাইলে দিনে ৬০০-৭০০ ক্যালোরি বেশি গ্রহণ করতে হবে আর যদি ওজন আস্তে আস্তে বাড়াতে চান তাহলে প্রতিদিন ৪০০-৫০০ ক্যালোরি বেশি গ্রহণ করতে হবে। এভাবে এক সপ্তাহ করলেই আপনার ওজন বৃদ্ধি পাবে।

৫। সঠিক প্রোটিন গ্রহণ

ওজন বৃদ্ধি করতে শুধুমাত্র ক্যালোরিই যথেষ্ট না। ক্যালোরির পাশাপাশি সঠিক প্রোটিন গ্রহণ করতে হবে। সঠিক প্রোটিন গ্রহন না করলে ক্যালোরি বাড়তি ফ্যাটের কারণ হয়ে দাঁড়াবে। তাই প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় প্রোটিন জাতীয় খাবার যেমন ডিম, ডাল ও দুধ অবশ্যই রাখবেন।

৬। ড্রাই ফ্রুটস খাবেন 

মোটা হওয়ার জন্য ড্রাই ফ্রুটস খাবেন -

ড্রাই ফ্রুটসে আছে প্রচুর ক্যালোরি ও ফ্যাট যা ওজন বৃদ্ধিতে অনেক কাজে দিবে। প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠেই ২টি কাজু ও ২টি কিসমিস খাবেন। এইটা কোনভাবেই ভুলবেন না। আর সকালের নাস্তায় রাখুন আমন্ড বা পেস্তা। ওজন বৃদ্ধিতে আপনার ডায়েট চার্টে বাদামের পরিমাণ বেশি রাখুন। এভাবে নিয়ম মেনে ড্রাই ফ্রুটস খেলে দেখবেন এক মাসের মধ্যেই আপনার ওজন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

৭। টেনশনমুক্ত থাকুন

সব সমস্যার সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে টেনশন। ওজন বৃদ্ধিতে যেমন টেনশনমুক্ত থাকা প্রয়োজন ঠিক তেমনি ওজন কমাতেও টেনশনমুক্ত থাকা খুবই আবশ্যক। আজকাল টেনশনমুক্ত থাকা খুবই কঠিন তাও চেষ্টা করবেন যতটা সম্ভব টেনশনমুক্ত থাকার।

৮। সঠিক পরিমাণ ঘুম 

শরীর ঠিক রাখতে ঘুম খুবই প্রয়োজন। প্রতিদিন ৮ ঘন্টা অবশ্যই ঘুমাতে হবে। এর থেকে কম হওয়া যাবে না। এছাড়া ঘুম থেকে উঠে প্রতিদিন নিয়ম করে ইয়োগা বা যোগাসন করুন। এতে আপনার ওজন দ্রুত বৃদ্ধি পাবে।

৯। ঘুমানোর আগে দুধ মধু খান

ঘুমোতে যাওয়ার আগে এমন কিছু খেতে পারেন যা বেশ পুষ্টিকর এবং ক্যালোরিযুক্ত। কারণ সেটা ঘুমিয়ে পরছেন বলে খরচ হচ্ছে না এবং পুরো রাত আপনার শরীরে ক্যালোরির কাজ করবে এবং ওজন বৃদ্ধি করবে। তাই প্রতিদিন ঘুমানোর আগে দুধ ও মধু মিশিয়ে খান। এটি ওজন বৃদ্ধিতে পরীক্ষিত এবং মোটা হওয়ার সহজ উপায়।

১০। বাহিরের খাবার

মোটা হওয়ার জন্য বাহিরের খাবার -

সচরাচর বাহিরের খাবার খেতে আমরা নিষেধ করে থাকি। কিন্তু ওজন বৃদ্ধিতে বাহিরের খাবার যেমন আইসক্রিম, কোল্ড ড্রিঙ্কস, পেস্ট্রি, বার্গার ইত্যাদি খাবার খুবই কার্যকরী। তাই আপনি চাইলে এগুলো খেতে পারেন কিন্তু তা হবে পরিমাণমতো। আপনার প্রতিদিনের ডায়েটে চকলেট এবং চিজও রাখতে পারেন।

ওজন বৃদ্ধি, হ্রাস অথবা শারীরিক যেকোন কাজের ক্ষেত্রেই পানি খুব উপকারী। প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে। নিয়ম করে এই মোটা হওয়ার সহজ উপায় লক্ষ্য করলেই আপনি ওজন বৃদ্ধি করে পাবেন সুন্দর স্বাস্থ্য। নিজের যত্ন নিন ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন।

+3 টি ভোট
করেছেন
ভাই মোটা হওয়ার বিষয়টা আপনার শরীরের গ্রোথ এর উপর নির্ভর করে। আপনি সারাদিন বেশি বেশি খেলেও মোটা হবেন না।

নিয়ম মেনে ঠিকমত খাওয়াদাওয়া তো করবেনই সাথে সাথে আপনার ঠিকমত ঘুম এর প্রয়োজন, এছাড়াও মানসিক টেনশন করা যাবে না। নিয়মিত পুষ্টিকর খাবার খান।নিয়মিত ব্যায়াম করুন, তাহলেই দেখবেন আসতে আসতে মোটা হবেন।
+3 টি ভোট
জাহিদ হাসান সাব্বির করেছেন (59 পয়েন্ট)

অনেকেই নিজের ওজন নিয়ে অত্যন্ত মানসিক বিষণ্নতায় ভোগেন।। বয়স অনুযায়ী এবং উচ্চতা অনুযায়ী ওজন মানানসই না হলে , অনেকের মাঝেই তীব্র বিষন্নতা দেখা যায়।। বন্ধুমহলে হাসির পাত্র হয়ে ওঠে।। 

তাই, আজকে এই বিষয় নিয়ে আলোচনা করব, কিভাবে ব্যালেন্সড উপায়ে ওজন বাড়াবেন❤️।। 

✓সবার প্রথমে আসি এক্সারসাইজ সম্পর্কে।। 

অনেকেই আপনারা বলতে পারেন, এক্সারসাইজ করলে ওজন কমে।।  তাই দেখা যায় যাদের ওজন কম স্বাভাবিকভাবেই শারীরিক পরিশ্রম বা এক্সারসাইজ থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করেন।। 

এক্সারসাইজ এমনই একটি জিনিস, যা শরীর-মন উভয়কে ভালো রাখে।। প্রত্যহ সকালের এক্সারসাইজ , ওজন বাড়ানোর প্রথম ওষুধ হিসেবে কাজ করে।। দেহের কোনায় কোনায় রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়।। 

কি ধরনের এক্সারসাইজ করবেন?? 

প্রথমেই জিমে গিয়ে ভারী ভারী যন্ত্রপাতি নিয়ে এক্সারসাইজ শুরু করে দিবেন??

সোজা উত্তরঃ না।

আপনি জিমে যাবেন অবশ্যই, প্রথমেই চেষ্টা করুন শরীরকে ফ্লেক্সিবল করার।। সে ক্ষেত্রে জিমের ইন্সট্রাক্টর এর কাছে ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ গুলো শিখে নিন।। নিজের দেহের ওজন দিয়ে, এক্সারসাইজ করুন।। জিমে যেতে না পারলে, ইউটিউবে হাজার হাজার ফ্রি-হ্যান্ড এক্সারসাইজ এর ভিডিও আছে।। সেগুলো দেখুন এবং প্রতিদিন রুটিন করে শুরু করুন।। এরপর দেখুন ম্যাজিক।।  তবে প্রথম দুইদিন শরির ব্যথা হতে পারে।। ব্যথা শরীর নিয়ে এক্সারসাইজ চালিয়ে যেতে হবে।। 

✓এবার আসি খাবারের মেনু  এবং খাওয়ার নিয়ম

১. ধরুন ২৫০০ ক্যালরি প্রতিদিন ক্ষয় হয়, তার চেয়ে ৫০০–৭০০ ক্যালরি খাবার বেশি খেয়ে শুরু করুন। ভাত, মাছ–মাংস, ডাল, বীজ, শাকসবজি, ফলমূল, ডিম, দুগ্ধজাতীয় খাবার নিয়মিত খেতে হবে।

২. ওজন বাড়ানোর জন্য অবশ্যই খাদ্যতালিকায় উচ্চ ক্যালরিযুক্ত খাবার রাখতে হবে। এ ধরনের কিছু খাবার হলো কাঠবাদাম, কাজুবাদাম, আখরোট, পেস্তাবাদাম, চিনাবাদাম, খেজুর, কিসমিস, ননিযুক্ত দুধ, ফুলক্রিম দই, পনির, ক্রিম, মুরগির মাংস, গরুর মাংস, ভেড়ার মাংস, ছাগলের মাংস ও কলিজা, আলু, মিষ্টি আলু, চকলেট, কলা, মাখন ইত্যাদি।

৩. দিনে পাঁচ–ছয়বার ইন্টারভেল করে খাবার গ্রহণ করুন।।  যাঁদের ওজন কম, তাঁদের তিন–চার ঘণ্টা পরপর খাবার খেতে হবে। দীর্ঘসময় পেট খালি রাখা যাবেনা। পুষ্টিকর উচ্চ ক্যালরির খাবার যদি বারবার গ্রহণ করা হয় এবং প্রতিদিনের ক্যালরির চাহিদা যদি পূরণ করা যায়, সে ক্ষেত্রে দ্রুতই ওজন বাড়ানো সম্ভব।

৪. যাদের ওজন কম, তাঁদের অবশ্যই মোট ক্যালরির শতকরা ৫০-৬০ ভাগ শর্করা গ্রহণ করতে হবে। দিনে তিনবার প্রধান খাবার হিসেবে শর্করা গ্রহণ করতে হবে। এ ধরনের খাবারের মধ্যে আলু, আটা, চাল, পাস্তা অন্যতম।

৫. ওজন বাড়াতে আমিষযুক্ত খাবার খাওয়া জরুরি।ডিম, দুধ, মাছ, মাংস, ডাল, বীজজাতীয় খাবার আমিষের ভালো উৎস। তবে সবার প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বলছি, আমিষ যুক্ত খাবার অনেক সময় অনেক দামী হয়ে থাকে , নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য দ্রব্য যাদের হাতের নাগালের বাইরে, তাদের জন্য চিন্তার কোন কারণ নেই।। বিভিন্ন ধরনের ডাল , প্রায় অনেকটাই সব ধরনের অ্যামাইনো এসিড (আমিষের ক্ষুদ্র একক) কাভার করে ফেলে।। 

✓অনেক কথা হল।। এবার আসি কিছু লাইফ স্টাইল মডিফিকেশনে

১. প্রথমেই ধূমপান, সম্পূর্ণভাবে ত্যাগ করতে হবে।। বিভিন্ন রোগের উৎস হিসেবে পরিচিত ধূমপান, দেহের স্বাভাবিক কার্যক্রম কে অনেকাংশেই ব্যাহত করবে।। 

২. ঘুম। ওজন বাড়ানোর জন্য একটি বড় ফ্যাক্টর।। প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম , ব্যালেন্সড ভাবে ওজন বাড়ানোর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।। চেষ্টা করুন তাড়াতাড়ি বিছানায় চলে যাওয়ার।। ৮ ঘন্টা বিশ্রাম একজন সুস্থ স্বাভাবিক মানুষের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।। 

৩. সর্বোপরি দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকুন। অ্যাক্টিভ হন।। জীবন একটাই।। এটিকে যথাসাধ্য টেনশন মুক্ত রাখুন।।

৪. জীবনের সমস্ত কাজকে গুছিয়ে আনুন।। সকালে ঘুম থেকে উঠে একটি রুটিন করে ফেলুন।। রুটিনমাফিক চলাফেরা করুন রুটিনমাফিক খাওয়া-দাওয়া করুন।। সাফল্য আসবেই।।

0 টি ভোট
Md Dipu Hasan করেছেন (2,330 পয়েন্ট)
প্রতিদিন পুষ্টিকর খাবার খাবেন ।

সম্পর্কিত প্রশ্নসমূহ

345 টি প্রশ্ন

798 টি উত্তর

125 টি মন্তব্য

461 জন সদস্য


ইপ্রশ্ন ডটকম হল মাতৃভাষায় সহজে সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য অনলাইন মাধ্যম। যেখানে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন ধরনের কৌতুহল মূলক অজানা প্রশ্ন জিজ্ঞাসা ও উত্তর খুজে পাওয়ার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে, নির্বিশেষে সহজে সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলায় দৃড় অঙ্গীকার বদ্ধ।

  1. Md Dipu Hasan Md Dipu Hasan

    2330 পয়েন্ট

  2. Nishat Nishat

    57 পয়েন্ট

  3. md nur islam md nur islam

    54 পয়েন্ট

  4. hasibul islam hasibul islam

    24 পয়েন্ট

সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় ট্যাগসমূহ

সাধারণ জ্ঞান . কোন দেশ কে ক্যান্সার বলা হয় ভিটামিন নামের অর্থ জানতে চাই তুলসী পাতা খাওয়ার উপকারিতা প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বিকাশ ইন্টারনেট অফার ওয়েবসাইট chatgpt বাংলাদেশ কয়টি জেলা অনলাইনে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় ইন্টারনেট মেয়ের নাম openai শরীর এবং স্বাস্থ্য ভালো রাখার উপায় মেয়েদের ইসলামিক নাম download speed মোটা হওয়ার উপায় বাংলাদেশে গ্রাম কতটি বিভাগ সংখ্যা facebook সফটওয়্যার পাসপোর্ট ফেসবুক অ্যাপ বিদায়ী অনুষ্ঠান এমবি ভর্তি তথ্য টাকা পাঠানো সিলিং ফ্যান সাবমারসিবল পাম্প ভালোবাসা অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন করার নিয়ম নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন ফরম online birth registration application birth certificate chatgpt কি? ai স্বাস্থ্য ভালো রাখার টিপস ভাষা হিন্দি সাইন্স ফিকশন চোখের পাতা কাঁপা অনলাইন টাকা ইনকাম করার উপায় প্রশ্ন ও উত্তর দিয়ে টাকা ইনকাম করুন কলেজের বিদায়ী বক্তব্য স্কুলের বিদায়ী বক্তব্য বিদায়ী অনুষ্ঠানের বক্তব্য
1 জন অনলাইনে আছে
0 জন সদস্য 1 জন অতিথি
আজকের ভিজিটরঃ 548
গতকালকেঃ 902
মোট ভিজিটরঃ 1545166

বিঃ দ্রঃ ইপ্রশ্ন তে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন, উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের।

...